সঠিক দিকে ফোকাস করলে বিনোদনেও শেখা মিলে

 

একটা কলম ও একটা সাদা কাগজ নিয়ে সাদা কাগজে কলম দিয়ে কাগজের মাঝখানে একটা গোল ডট দাও। এবার চোখের সামনে কাগজটা মেলে ধরলে। এরপর যে দিকে তাকানো হবে সেই দিকেই বার বার কালো ডটটা চোখে পড়ে।কোন ভাবেই কালো ডটটা চোখ থেকে সরে না।এর কারণ হলো ফোকাস।

আমাদের জীবনে তেমনি আমরা অনেক কিছুই করি, সেগুলোর জন্য আমাদের সময় নষ্ট হয় ঠিকই কিন্তু কাজের কাজ কিছুই হয় না। এসব কাজ বিনোদন বা পারিপার্শ্বিক যে কোন কারণে করে থাকি আমরা।এ ধরনের কাজ গুলো থেকে ও আমরা ফোকাস করে অনেক কিছু শিখতে পারি, নিজের উন্নতি করতে পারি।
আসলে সেখার ইচ্ছে ও মন মানুষিকতা থাকলে সব জায়গায় থেকেই কিছু না কিছু সেখা যায় তার জন্য দরকার ইচ্ছে ও অর্জন করার মতো মন মানুষিকতা।
প্রতিনিয়ত আমরা বিভিন্ন জায়গায় বিভিন্ন ক্ষেত্রে অনেক সময় ব্যায় করি সেইসব জায়গা গুলোতে যদি আমরা কোন কিছু সেখার মনমানুষিকতা নিয়ে থাকি তাহলে অনেক কিছুই শিকতে পারি,,
তেমনি কিছু বিষয় নিয়ে আজকে আলোচনা করবো আপনাদের সাথে আশা করবো আমরা পুরো লেখাটা পড়বে কিছু বুঝতে পারবেন।

ফেইসবুক

ফেইসবুক থেকে ও আমরা অনেক কিছু শিখতে ও জানতে পারি। এটা নিয়ে আমাদের আর কোনো দ্বিধা নেই।ডিএসবিতে আমরা অনেক কিছু শিখতে ও জানতে পারছি। ফেইসবুক আমাদের দৈনন্দিন জীবনের একটা অংশ বলা যায়।

সমস্যা হলো অনেকটা সময় আমরা ফেইসবুকে কাটায়। ফোকাস করলে ফেইসবুক থেকে অনেক কিছু শিখতে ও জানতে পারা যায়।ডিএসবি হচ্ছে ফেইসবুকের একটা দৃষ্টান্ত। আমরা অন্য সময় না করে এই গ্রুপে নিয়মিত সময় দিলে নিজের উন্নতি নিজেই বুঝতে পারবো।
আমরা অনেকেই ফেজবুকে অনেক সময় ব্যায় করি শুধু নিউজ ফিড ও বিনোদন মুলক বিডিও দেখে তার মধ্যে থেকে কিছু সময় যদি বিভিন্ন শিক্ষা মুলক গ্রুপ আছে বিভিন্ন লেখকের গ্রুপ বা পেজ আছে সেগুলোতে সময় দিলে অনেক কিছু অর্জন করতে পারি।

ইউটিউব:

খুব জনপ্রিয় আরেক টি সাইড হলো ইউটিউব। প্রতিদিন ইউটিউবে প্রবেশ করে না এই ধরনের লোক খুব কমই আছে। ইউটিউবে ঘন্টার পর ঘন্টা সময় ব্যয় করে। কিন্তু এই সময় টাকে কাজে লাগানো যায়।

ফানি ভিডিও দেখে সময় নষ্ট না করে ইউটিউবকে শেখার কাজে ফোকাস করি তাহলে অনেক কিছু জানার ও শেখার আছে।

বর্তমানে ইউটিউব ও গুগল এ পাওয়া যায় না এমন কোন বিষয় খুব কমই আছে। বিভিন্ন কোর্সের বিডিও আপনি এখন অনেক ইউটিউব চ্যানেলে পাওয়া যায়। যে গুলো থেকে আপনি আপনার বিভিন্ন দরণের স্কিল অর্জন করতে পারেন।

টেলিভিশন:

টিভি দেখে দিনের একটা সময় ব্যয় করে না। এমন মানুষ পাওয়া খুব কঠিন। ফেইসবুক ও ইউটিউব এর কারণে টিভির জনপ্রিয়তা কিছুটা কমেছে। কিন্তু টিভি দেখা বন্ধ হয়নি। প্রতিটা জিনিস থেকে কিছু না কিছু শেখার থাকে জানার থাকে।যদি আমরা শেখার দিকে ফোকাস করি তাহলে অবশ্যই শিখতে পারবো। আপনি কার্টুন থেকে ও অনেক কিছু শিখতে পারবেন। সেখানে ও বিভিন্ন মেসেজ থাকে শেখার জন্য। সংবাদ পাঠক পাঠিকা থেকে বাচন ভঙ্গি শিখতে পারা যায়। ইংলিশ মুভি দেখে ইংরেজি ভাষা বুঝার ও উচ্চারণের দক্ষতা অর্জন করা যায়।

ট্র্যাফিক জ্যাম:

ট্র্যাফিক জ্যাম ঢাকা শহরে থাকবেই এটা মেনে নিতে হবে। বিরক্ত না হয়ে ঐ সময়টাতে কাজে লাগিয়ে ও শেখা যায়। আগের রাতে ডাউন লোড করে নিতে পারেন অডিওবুক।অন্য সময় বই পড়ার সময় করতে না পারলে ঐ সময়টাতে হেডফোন কানে দিয়ে শুনে নিতে পারা যায়।সময় টা নষ্ট না করে বই পড়াটা ও হলো।

এভাবেই যদি আমরা সময় নষ্ট না করে সব কিছু থেকে শেখার বিষয় গুলো বের করতে পারি। সেখানে ফোকাস করতে পারি।তাহলে এক ঢিলে দুই পাখি মারা হয়ে গেল। বিনোদন ও হলো,শেখা ও হলো।

লিখেছেন
মিনা ভৌমিক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *