ক্রেতাকে খুশি করুন, তারা আপনাকে খুশি করবে!

 

একজন উদ্যোক্তার এগিয়ে যাবার অন্যতম হাতিয়ার হলো ক্রেতা আর সেই ক্রেতা যদি আপনার প্রতি খুশি থাকে তাহলে আপনার এগিয়ে যাওয়া কেউ আটকিয়ে রাকতে পারবে না।
তাই বিজনেসে এগিয়ে যাওয়ার জন্য ক্রেতার খুশি অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়।

ব্যবসাটাকে দীর্ঘ স্হায়ী করার জন্য, ক্রেতার সাথে ভালো আচরণ অবশ্যই প্রয়োজন। ক্রেতার আশানুরূপ পন্য সার্ভিস দিলে আপনার ব্যবসার দীর্ঘস্হায়ীয়তা এমনিতেই চলে আসবে আর কাজ কারার মানসিকতা প্রবল হবে।

আজকে এমনই কিছু বিষয় নিয়ে আলোচনা করবো আশা করি পুরো লেখাটি মনোযোগ দিয়ে পড়বেন

৩-৪ দিন আগে তাদের ফেসবুক পেইজের মাধ্যমে একটা অর্ডার আসে। ফেসবুক অ্যাড দেখে ক্রেতা অর্ডার করেন এবং অর্ডার যথারীতি রিসিভ করা হয়। কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত অ্যাডে বেশ কয়েকটি পণ্য থাকায় একটা ছবির তথ্য আরেকটির সাথে ওলটপালট হয়ে যায়। ক্রেতা শুধু অ্যাডে ছবির সাথে দেয়া কোড নম্বর দিয়ে অর্ডার দিয়েছিলেন বলে ভুলটা কেউই ধরতে পারেননি।

তো পেইজের মালিক যথারীতি ক্রেতাকে পণ্য পাঠিয়ে দেন। ক্রেতা বেশ কয়েকটি পণ্য একসাথে অর্ডার করেছিলেন। সব ঠিক পেয়েছিলেন এই পণ্যটা ছাড়া। তাই মন খারাপ হলেও আর জানাননি বিষয়টি পেইজের মালিককে।

প্রোডাক্ট ডেলিভারি হওয়ার ১ দিন পর ঐ পেইজের মালিক সেই ক্রেতার কাছে ফিডব‍্যাক জানার জন্য ফোন করা হয়। ক্রেতা খুব বেশি কিছু না বলে শুধু বলে, দিতে বলেছিলাম কি, দিয়েছেন কি? বলে ফোন রেখে দেয়। কয়েকবার চেষ্টার পরও সে আর ফোন রিসিভ করেনি। এদিকে মালিক চেষ্টা করলেন সমস্যা বের করার। অনেক চেষ্টার পর বোঝা গেল সমস্যা।

তো পেইজের মালিক পরদিন আসল প্রোডাক্ট নিয়ে সাথে উপহার স্বরূপ একটি কেক নিয়ে ক্রেতার বাসায় হাজির হলেন। ক্রেতা তো খুব হতবাক। এরকমও হয় নাকি। তাই সেই সাইটের মালিক সরি বলার আগেই ক্রেতাই সরি বলা শুরু করলেন এত কঠিন ব্যবহারের জন্য।

বলে রাখি,

যে প্রোডাক্ট অর্ডার করা হয়েছিল তার দামঃ ৮০০/=

যে কেক নিয়ে গিয়েছিলেন তার দামঃ ১২০০/=

যাতায়াত সহ অন্যান্য খরচ ছিল প্রায়ঃ ১১০০/=

তার মানে ৮০০ টাকার একটা পণ্যের জন্য ২৩০০ টাকা ক্ষতি। যেটা থেকে লাভ হবে হয়তো সরবোচ্চ ১০০-২০০ টাকা। অই পেইজের মালিক কি বোকা… তাই না?

পরের দিনই ঐ ক্রেতা অই পেইজে আরেকটি অর্ডার করেন। কত টাকার জানেন? আন্দাজ করুন তো কত হতে পারে?

১০,০০০ টাকার। একটা বাচ্চাদের খেলনার সাইটের ১০,০০০ টাকার অর্ডার করেছেন একজন ক্রেতা। বুঝতে পারছেন সেই ক্রেতার লেভেল। বিক্রেতা যদি মনে করতেন আরে একটা ক্রেতা গেছে তো কি হয়েছে ! আরেকটা ক্রেতা পাব। তাহলে কিন্তু তিনি এত ভাল একজন ক্রেতা হারাতেন। সাথে এই ক্রেতাই হয়তো আরো ১০ জায়গায় গিয়ে বলত এরা বাটপার। ফলস্বরূপ আরও কিছু ক্রেতা হয়তো বিক্রেতা হারাতো।

বিক্রেতা কিন্তু তা করেননি। তিনি তার ক্রেতার সন্তুষ্টির দিকে নজর দিয়েছেন। ক্রেতাও তাকে তার প্রতিদান দিয়েছেন। সে হয়তো নিজেই আরও মানুষকে তাদের সার্ভিস সম্পর্কে জানাবে।

তাই আমরা যারা ব্যবসায়ি আমাদের অবশ্যই ক্রেতার সন্তুষ্টি দিকে খেয়াল রাকতে হবে।

আরেকটি বিষয়। আফটার সেলস সার্ভিস। এখানে প্রোডাক্ট ডেলিভারি করার পর যদি আর কোন খোঁজ না নেয়া হত তাহলে কিন্তু কখনই সমস্যাটি সম্পর্কে জানা যেত না। তাই আফটার সেলস সার্ভিস এর দিকেও আমাদের নজর দেয়া উচিত। অনেক ক্রেতাই থাকেন যারা কোন পন্যে সমস্যা থাকলেও আর ঝামেলা করতে চান না। কিন্তু আপনি কিন্তু একজন ক্রেতা হারালেন।

ফাতেমা জাকির
শমবেরী, ফ্রান্স।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *